হাঁটু প্রতিস্থাপনের ন্যায্যমূল্যের সময়সীমা এক বছরের জন্য অপরিবর্তিত রাখার সিদ্ধান্ত

তন্ময় দও Sep 18, 2020 - Friday ময়নাগুড়ি 51


সাধারণ মানুষের কাছে জরুরি চিকিৎসা সামগ্রীর যোগান সুনিশ্চিত করতে ওষুধ মূল্য নিয়ন্ত্রক সংস্থা ন্যাশনাল ফার্মাসিউটিক্যাল প্রাইসিং অথরিটি (এনপিপিএ) হাঁটু প্রতিস্থাপনের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সরঞ্জামের ন্যায্যমূল্যের সময়সীমা আরও এক বছর বাড়িয়ে ২০২১-এর ১৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।



এই প্রেক্ষিতে এনপিপিএ ২০১৩-র ওষুধ মূল্য নিয়ন্ত্রণ বিধির আওতায় গত ১৫ সেপ্টেম্বর এক বিজ্ঞপ্তি জারি করেছিল।



এনপিপিএ ২০১৭-র ১৬ আগস্ট জারি করা এক নির্দেশে প্রথমবার হাঁটু প্রতিস্থাপনের ন্যায্যমূল্যের সময়সীমা এক বছরের জন্য অপরিবর্তিত রাখার সিদ্ধান্ত নেয়। ২০১৮-র ১৩ আগস্ট থেকে এই ন্যায্যমূল্যের সময়সীমার মেয়াদ আরও এক বছরের জন্য বাড়িয়ে ২০১৯-এর ১৫ আগস্ট পর্যন্ত করা হয়। পরবর্তীকালে মেয়াদ আরও এক বছর বাড়িয়ে ২০২০-র ১৫ আগস্ট পর্যন্ত হয়। এর ফলে, হাঁটু প্রতিস্থাপনের সরঞ্জামের সর্বোচ্চ মূল্যসীমার বাৎসরিক মেয়াদ গত ১৫ আগস্ট শেষ হয়ে যায়। এই প্রেক্ষিতে এনপিপিএ ন্যায্যমূল্যের সময়সীমা আরও এক বছর বাড়িয়ে ২০২১-এর ১৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।



এনপিপিএ গত জুলাই মাসে হাঁটু প্রতিস্থাপনের সরঞ্জাম উৎপাদন বা আমদানির সঙ্গে যুক্ত সমস্ত সংস্থাকে ২০১৮-র জুলাই থেকে ২০২০-র জুন পর্যন্ত যাবতীয় বিক্রয় সংক্রান্ত বিবরণ জমা করার নির্দেশ দেয়। এনপিপিএ-এর গত ৬ আগস্ট অনুষ্ঠিত বৈঠকে ১৪টি প্রধান সংস্থা তাদের লেনদেন সংক্রান্ত রিপোর্ট জমা দিয়েছে। বৈঠকে আরও সিদ্ধান্ত হয়, সাধারণ মানুষের স্বার্থের কথা ভেবে হাঁটু প্রতিস্থাপনের ন্যায্যমূল্যের সময়সীমা আরও এক বছর বাড়িয়ে ২০২১-এর ১৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত করা হবে।



কর্তৃপক্ষের গত ১৪ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয় ২০১৭-তে হাঁটু প্রতিস্থাপন ক্ষেত্রে খরচ সাধারণ মানুষের স্বার্থে ৫৯ শতাংশ কমানোর ফলে দেশীয় উৎপাদকদের বাজার অংশীদারিত্ব পরবর্তী দু'বছরে ১১ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই দেশীয় সংস্থাগুলির এই অংশীদারিত্ব বৃদ্ধি পাওয়ায় কেন্দ্রীয় সরকারের আত্মনির্ভর ভারত গঠনের লক্ষ্য অর্জন করা সম্ভব হবে বলে মনে করা হচ্ছে।



এদিকে এনপিপিএ হাঁটু প্রতিস্থাপনের ক্ষেত্রে সর্বাধিক খরচের ঊর্ধ্বসীমা ২০২১-এর ১৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বাড়ানোর ব্যাপারে গত ১৫ সেপ্টেম্বর এই মর্মে বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে। এই সিদ্ধান্তের ফলে সাধারণ মানুষের ১,৫০০ কোটি টাকা সঞ্চয় হবে।



পিআইবি সুত্রে উপরোক্ত বিষয় জানা গেছে।

আপনাদের মূল্যবান মতামত জানাতে কমেন্ট করুন ↴

সবার আগে খবর পেতে , পেইজে লাইক দিন

আপনার পছন্দ

বিজ্ঞাপন
PMBJK DHUPGURI


আরও খবর

বিজ্ঞাপন
PMJOK
HS02