মৌসুমিবায়ু ঢুকতেই ডুয়ার্সে বর্ষা শুরু, বৃষ্টি ও করোনা বিধিনিষেধে রবিবার সুনসান ডুয়ার্স

দেবজ্যোতি চ্যাটার্জি Jun 06, 2021 - Sunday মালবাজার 119


করোনা প্রকোপ ঠেকাতে রাজ্য জুরে চলছে বিধিনিষেধ। এই পরিবেশে আমাদের রাজ্যে মৌসুমিবায়ু প্রবেশ করেছে। আবহাওয়া দপ্তর সেই খবর দিয়েছেন। মৌসুমিবায়ু ঢুকতেই ডুয়ার্সে শুরু হয়েছে প্রান খোলা বর্ষন। গত কয়েকদিন ধরেই সকালের দিকে আকাশ পরিস্কার থাকলেও বিকেলে হতেই বৃষ্টি হয়েছে। শনিবার বিকেল থেকেই শুরু হয় বৃষ্টি। রাতে মাঝেমধ্যে থামলেও বৃষ্টি হয়েই গেছে। রবিবার সকাল থেকে আকাশ ছিল মেঘাচ্ছন্ন সেই সাথে কখনো প্রবল ধারায় আবার কখনো হালকা ধরনের বৃষ্টি হয়েছে। বিকেলের দিকে খানিকটা থামে বৃষ্টি।

একদিকে করোনা পরিস্থিতিতে বিধিনিষেধ এর সাথে লাগাতার বৃষ্টিতে রবিবার ডুয়ার্সের হাট বাজার, রাস্তাঘাট সবই প্রায় ফাঁকা ছিল। রবিবার ডুয়ার্সের চাবাগান গুলিতে সাপ্তাহিক ছুটি থাকে। শ্রমিক বিভিন্ন হাটে সাপ্তাহিক বাজার করতে আসে।করোনা সংক্রমণ মারাত্মক ভাবে বেড়ে যাওয়ায় ওদলাবাড়ি এলাকায় সিল্ড লকডাউন ঘোষণা করেছে স্থানীয় পঞ্চায়েত। স্বাভাবিক ভাবে ওদলাবাড়ির হাটবাজার, রাস্তা দৃশ্যত ছিল জনশূন্য। মালবাজার শহরে নিয়ম মেনে দোকান ও ডেইলি মার্কেট খোলা থাকলেও জনসমাগম ছিল অন্যান্য দিনের থেকে কম। চালসা, মেটেলি ও নাগরাকাটার পরিবেশ ছিল প্রায় একই রকম।

বর্ষা শুরু হতেই ডুয়ার্সের নদী ও ঝোড়া গুলিতে জল বইতে শুরু করেছে। তাপমাত্রা অনেকটাই নিচে নেমে এসেছে। বনাঞ্চল ও চাবাগানে এখন সবুজের সমারোহ। চাবাগান গুলিতে পাতা তোলার ভরা মরসুম। সোনগাছি চাবাগানের ম্যানেজার জানান, এসময় বৃষ্টি ডুয়ার্সের স্বাভাবিক পরিবেশ। এরসাথে মাঝেমধ্যে রোদ পেলে উৎপাদন ভালো হবে।

ডুয়ার্সে বর্ষাকালের রুপই আলাদা।খরস্রোতা নদীর বুকে শুরু হয় কলতান।চাবাগান, বনাঞ্চল ভরে ওঠে সবুজে। সন্ধ্যা হতেই আশেপাশে শোনা যায় ঝিঁঝিঁ পোকার ডাক। উরচিংগে থেকে নানা পোকামাকড়ের আনাগোনা শুরু হয়। এবার লকডাউনের কারনে বাতাসে দুষন অনেকটা কম রয়েছে। তাই বর্ষার ঘনঘটা ভালোই হবে বলে ধারণা অনেকের। বর্ষার ঘনঘটার মাঝে করোনা নামের অতিমারি বিদায় নিক এটাই সবার কামনা।

আপনাদের মূল্যবান মতামত জানাতে কমেন্ট করুন ↴

সবার আগে খবর পেতে , পেইজে লাইক দিন

আপনার পছন্দ

বিজ্ঞাপন
PMJOK

আরও খবর

বিজ্ঞাপন
PMJOK